ভাসানচর থেকে ৩ শিশুসহ পালাচ্ছিলেন ৩ রোহিঙ্গা নারী, আটকে দিলেন স্থানীয়রা - দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার যাওয়ার পথে ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশুকে আটক করেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরের স্থানীয় বাসিন্দারা। আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাদের আবার ক্যাম্পে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে। এর আগে বুধবার দুপুরে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের থেকে তাদের আটক করে চরজব্বর থানায় সোপর্দ করা হয়।

আটককৃতরা হলেন ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রের ৭৬ নম্বর ক্লাস্টারের হাসিনা বেগম (৩৫), আলমার জাহান (৩০), রোজিনা আক্তার (১৯), সাইফুল ইসলাম (১২), মো. ইয়াছিন (৩) এবং মো. আজিজ (১)।

চরজব্বর থানার ওসি মো.জিয়াউল হক তারেক জানান, গত বুধবার ভোররাতের দিকে ৩ শিশুসহ ৩ নারী রোহিঙ্গা ভাসানচর থেকে পালিয়ে দালালের সহযোগিতায় চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা

হন। পথে সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন এলাকায় দালাল ও নৌকার মাঝি গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে তাদের নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান। কিছুক্ষণ পর সেখানে থাকা স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে চরজব্বর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ভাসানচরে দায়িত্ব পালনরত ক্যাম্প কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে অনুরোধ জানালে সেখানে থাকা এপিএনের মাধ্যমে আজ সকালে তাদের ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার যাওয়ার পথে ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশুকে আটক করেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরের স্থানীয় বাসিন্দারা। আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাদের আবার ক্যাম্পে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে। এর আগে বুধবার দুপুরে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের থেকে তাদের আটক করে চরজব্বর থানায় সোপর্দ করা হয়।

আটককৃতরা হলেন ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রের ৭৬ নম্বর ক্লাস্টারের হাসিনা বেগম (৩৫), আলমার জাহান (৩০), রোজিনা আক্তার (১৯), সাইফুল ইসলাম (১২), মো. ইয়াছিন (৩) এবং মো. আজিজ (১)।

চরজব্বর থানার ওসি মো.জিয়াউল হক তারেক জানান, গত বুধবার ভোররাতের দিকে ৩ শিশুসহ ৩ নারী রোহিঙ্গা ভাসানচর থেকে পালিয়ে দালালের সহযোগিতায় চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা

হন। পথে সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন এলাকায় দালাল ও নৌকার মাঝি গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে তাদের নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান। কিছুক্ষণ পর সেখানে থাকা স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে চরজব্বর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ভাসানচরে দায়িত্ব পালনরত ক্যাম্প কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে অনুরোধ জানালে সেখানে থাকা এপিএনের মাধ্যমে আজ সকালে তাদের ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

ভাসানচর থেকে ৩ শিশুসহ পালাচ্ছিলেন ৩ রোহিঙ্গা নারী, আটকে দিলেন স্থানীয়রা

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ ৪ নভেম্বর, ২০২১ | ৯:৫২ 50 ভিউ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে পালিয়ে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার যাওয়ার পথে ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশুকে আটক করেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরের স্থানীয় বাসিন্দারা। আজ বৃহস্পতিবার সকালে তাদের আবার ক্যাম্পে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে। এর আগে বুধবার দুপুরে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের থেকে তাদের আটক করে চরজব্বর থানায় সোপর্দ করা হয়। আটককৃতরা হলেন ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রের ৭৬ নম্বর ক্লাস্টারের হাসিনা বেগম (৩৫), আলমার জাহান (৩০), রোজিনা আক্তার (১৯), সাইফুল ইসলাম (১২), মো. ইয়াছিন (৩) এবং মো. আজিজ (১)। চরজব্বর থানার ওসি মো.জিয়াউল হক তারেক জানান, গত বুধবার ভোররাতের দিকে ৩ শিশুসহ ৩ নারী রোহিঙ্গা ভাসানচর থেকে পালিয়ে দালালের সহযোগিতায় চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা

হন। পথে সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন এলাকায় দালাল ও নৌকার মাঝি গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে তাদের নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান। কিছুক্ষণ পর সেখানে থাকা স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে চরজব্বর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ বিষয়ে ভাসানচরে দায়িত্ব পালনরত ক্যাম্প কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে অনুরোধ জানালে সেখানে থাকা এপিএনের মাধ্যমে আজ সকালে তাদের ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ: